কুড়িগ্রাম সদর থানার পরিত্যক্ত জায়গায় শাক-সবজি চাষ

Spread the love
  • 6
    Shares

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘দেশের এক খণ্ড জমিও যেন অনাবাদী না থাকে। ফসল উৎপাদনে বেশি নজর দিতে হবে। যারা ঘরে বসে আছেন ছাদে বাগান করুন, জমি থাকলে গাছ লাগানোর কাজ আপনারা নির্বিঘ্নে করতে পারেন।’

এরই পরিপ্রেক্ষিতে থানা চত্বরে পরিত্যক্ত জায়গা পরিষ্কার করে চাষ করা হয়েছে নানা ধরনের শাক-সবজির ক্ষেত। সে ক্ষেত যেন সবুজের সমারোহ। এই সবজি ক্ষেত থেকে থানার সংশ্লিষ্ট সবাই তাদের পুষ্টির  চাহিদা পূরণ করছেন।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে,  কুড়িগ্রাম সদর থানা চত্বরে প্রায় ৫০ শতক পরিত্যক্ত জায়গা পরিষ্কার করে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার (ওসি) উদ্যোগে বিভিন্ন প্রকার শাক সবজি লাগিয়েছেন।  চাষ করেছেন পুঁইশাক, লালশাক, লাউ শাক, পাটশাক, পালং শাক, মূলাশাক, বেগুন, ও ঢেঁড়সসহ বিভিন্ন জাতের শাক সবজি। থানা সংশ্লিষ্ট সবাই বাজার থেকে সবজি না কিনে এখান থেকে সবজি তুলে থানার ম্যাচসহ তারা পরিবারের চাহিদা মেটাচ্ছেন।

কুড়িগ্রাম সদর থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. শাহিনুর রহমান বলেন আমি এখানে পরিবার নিয়ে থাকি, আমার সবজির চাহিদা এখান থেকেই মিটছে। বাজারের সবজি কেনা লাগে না বললেই চলে।’

সবজি ক্ষেতের উদ্যোক্তা ওসি মো. মাহাফুজুর রহমান বলেন, ‘সরকারের নির্দেশে আমি ব্যক্তিগতভাবে থানার পরিত্যক্ত জায়গাগুলোতে বিভিন্ন শাক-সবজি চাষ করেছি। এখানে আবাদ করা সবজি থানার সংশ্লিষ্ট সবাই নিয়ে যায়। বাজার থেকে কেনা লাগছে না।’

কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘থানার ভেতরে সবজি চাষ, এটা খুবই ভালো উদ্যোগ। এরকমভাবে সকল পরিত্যক্তজায়গায় শাক-সবজি চাষ করলে আমাদের পুষ্টির চাহিদা মিটবে। আমি ওসির এউ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই।

 

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x