চিনের কাছে ১৩ হাজার কোটি পাউন্ড ক্ষতিপূরণ চেয়েছে জার্মানি

Spread the love

চীনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ফ্রান্স, বৃটেন ও যুক্তরাষ্ট্র। তার সঙ্গে যোগ দিলো জার্মানি। দেশগুলোর দাবি, চীনের উহান থেকেই করোনাভাইরাসের উৎপত্তি এবং বিষয়টিকে তারা ধামাচাপা দিয়ে রাখতে চেয়েছিল। এ ছাড়া করোনায় আক্রান্ত ও মৃত সংখ্যা অনেক কম করে দেখিয়েছে বলে চীনের বিরুদ্ধে তাদের অভিযোগ।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণের জন্য চীনকে দায়ী করেছে জার্মানি। এর জন্য বেইজিংয়ের কাছে ১৩ হাজার কোটি পাউন্ডের ক্ষতিপূরণ চেয়েছে দেশটির প্রভাবশালী পত্রিকা ‘বিল্ড’। এছাড়া চীনের কাছে ১৩০০০ কোটি পাউন্ড ক্ষতিপূরণ চেয়ে ইনভয়েস পাঠিয়েছে জার্মানি।

এতে চলচ্চিত্র শিল্পে ৭২০ কোটি ইউরো বা ৬২৭.২১ কোটি পাউন্ড,পর্যটনখাতে ২৭০০ কোটি ইউরো বা ২৩৫২.০২ কোটি পাউন্ড ক্ষতি দেখানো হয়েছে।ক্ষুদ্র ব্যবসায় ৫০০০ কোটি ইউরো বা ৪৩৫৫.৬০ কোটি পাউন্ড ক্ষতি দেখানো হয়েছে এবং জার্মানির বিমান সংস্থা লুফথানছায় ঘন্টা প্রতি ১০ লাখ ইউরো বা ৮৭ লাখ পাউন্ড

‘বিল্ড’-এর হিসাব মতে, এই ক্ষতি জার্মানিতে যদি জাতীয় প্রবৃদ্ধি শতকরা ৪.২ ভাগ পতন হয়, তাহলে মাথাপ্রতি ক্ষতি হবে ১৭৮৪ ইউরো বা ১৫৫০ পাউন্ড। এ নিয়ে ‘বিল্ড’-এর সংবাদ শিরোনাম ‘হোয়াট চায়না ওউস আস’। অর্থাৎ আমাদের কাছে চীনের যে ঋণ।

এরই মধ্যে উহানের একটি ল্যাবরেটরি থেকে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। এমনটা বিশ্বাস নিয়ে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলো তদন্ত শুরু করেছে। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘটনার সত্যতা পেলে চীনকে কঠোর পরিণতি ভোগ করতে হবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। সূত্র: এক্সপ্রেস

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x