ঝিনাইদহের শৈলকুপা কোয়াটারট বরাদ্দ উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসারের কিন্তুু থাকেন পরিদর্শক

  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার কাঁচেরকোল ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রের সরকারী আবাসিক কোয়াটারটি বেদখল হয়ে গেছে। ওই সরকারী কোয়াটারটি উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার মোছাঃ মায়ানুর আক্তারের নামে বরাদ্দ থাকলেও তিনি ওই বাসায় বসবাস করেন না। ফলে দীর্ঘ ৫ বছরের বেশি সময় ধরে বিনা ভাড়ায় বসবাস করছেন হুমায়ন কবীর পলাশ নামে এক পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক। হুমায়ন কবীর বসবাসের সুযোগ নিয়ে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রের ভিতরে থাকা সরকারী গাছ কেটে ঘরের ফার্নিচার বানিয়েছেন বলে অভিযোগ।

এছাড়া সরকারী কোয়াটারে বসেই তিনি এলাকায় রাজনীতি করে বেড়ান। এলাকাবাসির অভিযোগ পরিদর্শক হুমায়ন কবীর অল্প সময় অফিস করে দলাদলির রাজনীতি করে বেড়ান। এছাড়া সরকারী ওষুধ মুখচেনা লোকের মধ্যে বিতরণ করেন বলে কেও কেও অভিযোগ করেন। বিষয়টি নিয়ে শৈলকুপা উপজেলা মা ও শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্রের মেডিকেল অফিসার ডাঃ গোলাম রহমান খবরের সত্যতা স্বীকার করে জানান, আমরা তাকে চিঠি দিয়েছি বাসা ছেড়ে দেওয়ার জন্য। এ মাসেই সে বাসা ছেড়ে দিবে। উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার মোছাঃ মায়ানুর আক্তার জানান, বাসাটি আমার নামে বরাদ্দ। প্রতিমাসে বাসা ভাড়া আমি প্রদান করলেও আমি থাকি না। পরিদর্শক পলাশের সঙ্গে আমার ভাইবোনের সম্পর্ক, তাই তাকে আমি থাকতে বলেছি। পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক হুমায়ন কবীর পলাশ বলেন, আমি ১২ হাজার টাকা ব্যায় করে বাসা মেরামতের মাধ্যমে বসবাসের উপযোগী করেছি। যখন বিনা ভাড়ায় থাকার কথা উঠছেই তখন আমি বাসা ছেড়ে দেব।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x