ঝিনাইদহে ইট ভাটার মাটিতে পাকা রাস্তায় ভয়ঙ্কর কাদা

  • 425
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ঝিনাইদহ শহরের পাগলা কানাই ঢোল সমুদ্র দীঘি রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন শত শত যানবাহনসহ সাধারণ মানুষ চলাচল করে। হালকা বৃষ্টিতে পাকা রাস্তার উপর কাদার সৃষ্টি হয়ে চরম দুর্ভোগে পড়েছে এলাকাবাসী। রাস্তা দিয়ে ভ্যান-সাইকেল তো দূরের কথা পায়ে হেঁটে চলাও দায় হয়ে পড়েছে।

ইটভাটার অবৈধ ট্রাক্টর-ট্রলি পাকা রাস্তা দিয়ে নিয়মিত মাটি উঠানোয় এই কাদার সৃষ্টি হয়েছে বলে জানান স্থানীয়রা। এ নিয়ে জনগণের মাঝে চরম অসন্তোষ দেখা দিলেও প্রশাসনের নিরবতায় জনগনের মাঝে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

ঝিনাইদহে ইট ভাটার মাটিতে পাকা রাস্তায় ভয়ঙ্কর কাদা

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, ইটভাটার ট্রাক্টরে ধারণ ¶মতার চেয়ে অতিরিক্ত বহন করা মাটি সড়কে পড়ে। বেশ কিছুদিন ধরে ধুলায় টিকে থাকা দায় হয়ে পড়েছিল। এখন বৃষ্টি হওয়াতে পাকা রাস্তাটি কাদাময় হয়ে পড়েছে। চলাচলসহ নিত্য প্রয়োজনীয় কাজে বেড়েছে দুর্ভোগ। শুধু যে এ সড়কেরই এমন বেহাল অবস্থা তা নয়। মহা সড়কের বিভিন্ন এলাকা থেকে শুরু করে গ্রামের রাস্তা গুলো এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, শহরের পাগলা কানাই থেকে ঢোল সমুদ্র দীঘি হয়ে বাড়িবাথান, রাজাপুর, বেড়বাড়ী ও তেতুলতলা এসব সড়কসহ প্রতিটি রাস্তায় ব্যাপক কাদার সৃষ্টি হয়েছে। এতে করে রাস্তার চলাচলকারী জনগণ পড়েছেন চরম ভোগান্তিতে। বিশেষ করে মোটরসাইকেল চালকদের বিপদের কোনো শেষ নেই। কয়েকটি মোটরসাইকেল এরইমধ্যে দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে বলে জানা গেছে। এছাড়া ভ্যান, সিএনজি, চলাচলে ব্যাপক বিঘœ ঘটছে। স্কুল-কলেজগামী শি¶ার্থী ও  পথচারীদের ভোগান্তি আরো চরম আকার ধারণ করেছে।

এ রাস্তায় চলাচল করা মটরসাইকেল আরহি আকবার হোসেন বলেন, ইটভাটার কাজে নিয়োজিত মাটিবাহী যানবাহন থেকে রাস্তায় পড়ে যাওয়া মাটি রোদের সময় রাস্তায় শুকনোয় ধুলা আর বর্ষায় কাদাময় হয়ে থাকে দেখে বুঝার উপায় থাকে না এটা পাকা রাস্তা। এতে বছরজুড়েই এই সড়কে চলাচল করতে পোহাতে হয় দুর্ভোগ।

ঝিনাইদহে ইট ভাটার মাটিতে পাকা রাস্তায় ভয়ঙ্কর কাদা

দশম শ্রেণীর স্কুল ছাত্র রাফাত বলেন, দেখে বোঝার উপায় নেই এটা পাকা রাস্তা বৃষ্টিতে রাস্তায় পড়ে থাকা ইট ভাটার মাটিতে এ কাদার সৃষ্টি হয়েছে।  এ রাস্তা দিয়ে হেটে স্কুলে যাওয়ার সময় পা পিচলে কাদা রাস্তার মধ্যে পড়ে গিয়েছিলাম।

এব্যাপারে ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাম্মী ইসলাম মোবাইলে জাগো নিউজকে জানান, জনসাধারণের চলাচলের রাস্তা নষ্ট করা সম্পর্কে কোন অভিযোগ আমার কাছে আশেনি।  এমনকি স্থানীয় চেয়ারম্যানও এবিষয়ে আমাকে অবগতকরেনি। যেহেতু আপনার মাধ্যমে ব্যাপারটা জানতে পারলাম, আমি খোজখবর নিয়ে রাস্তাটি সংস্কারের উদ্যেগ নেব  এবং ইটভাটার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে ঝিনাইদহ পাগলাকানাই ইউনিয়নের  চেয়ারম্যান  এ কে এম. নজরুল ইসলাম  জানান, আমরা এ সমস্যা নিয়ে অনেক দিন ধরে এ সড়কে চলাচল করছি। প্রতিদিন এসড়কে দূর্ঘটনা ঘটে, যার মুল কারনই হলো ইট ভাটা। এদের কারনে পাকা রাস্তা হয়ে পড়েছে কাচা রাস্তা। আমরা এ বিষয়ে ডিসি অফিসে জানিয়েছি। আমরা চাই দ্রুত ইট ভাটা দুটি এখান থেকে সরিয়ে নেওয়া হোক

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x