ঝিনাইদহে প্রকৌশলীকে লাঞ্চিত করার অভিযোগে চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার

Spread the love
  • 12
    Shares

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু উপজেলা পরিষদের প্রকৌশলী রওশন হাবিবকে মারপিট করে জেলা আওয়ামীলীগ নেতা ও ফলসি ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান। একটি ঠিকাদারি কাজের বিল দেওয়াকে কেন্দ্র করে চেয়ারম্যান এ হামলা চালিয়ে তাকে লাঞ্চিত করার অভিযোগ উঠে।

এ ঘটনায় সোমবার (১৮মে) বিকালে হরিণাকুন্ডু থানায় উপজেলা প্রকৌশলী রওশন হাবিব বাদি হয়ে একটি মামলা করে। পরে পুলিশ সন্ধ্যার দিকে হরিনাকুন্ডু এলাকায় অভিযান চালিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুর রহমানকে গ্রেপ্তার করে। তিনি উপজেলার ৬নং ফলসী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।

ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান জানান, আজ সোমবার বিকালে ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডু উপজেলা পরিষদের ভিতরে স্থানীয় ফলসি ইউপি চেয়ারম্যান ও ঠিকাদার ফজলুর রহমান একটি ঠিকাদারী কাজের বিল নিয়ে প্রকৌশলী রওশন হাবিবের সাথে বাদানুবাদে লিপ্ত হয়। এক পর্যায়ে তাকে অফিসের মধ্যে ফেলে মারপিট করেন বলে অভিযোগ উঠে। এ ঘটনার পর উপজেলা প্রকৌশলী রওশন হাবিব বাদি হয়ে থানায় একটি মামলা করেন। পরে পুলিশ সন্ধ্যার দিকে অভিযুক্ত চেয়ারম্যানকে গ্রেপ্তার করে।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী রওশন হাবিব জানান, হরিণাকন্ডু উপজেলা ৫টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কাজ হচ্ছে। এ জন্য ২ কোটি ২৩ লাখ টাকার বিল এসেছে। ঈদ সামনে করে সব ঠিকাদারকেই কম বেশি বিল পরিশোধ করা হচ্ছে। তিনি বলেন ফান্ডে ১৬ লাখ টাকা আছে। ফজলু চেয়ারম্যান একাই ১৬ লাখ টাকা নিতে চান।

প্রকৌশলী রওশন হাবিবের ভাষ্য মতে ১৬ লাখ টাকা তিনি ঠিকাদার কবির ও আলাউদ্দীন এবং ফজলুর রহমানের মাঝে ভাগ করে দিতে চেয়েছিলেন। এ নিয়ে ফজলু চেয়ারম্যান তার উপর ক্ষিপ্ত হন।  এক পর্যায়ে তিনি সরকারি কাজে বাধা দেন ও তাকে অফিসের মধ্যে ধাক্কা দিয়ে ফেলে মারতে তেড়ে আসেন।

তবে গ্রেপ্তারকৃত অভিযুক্ত চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান মারপিটের কথা অস্বীকার করে জানান, বিল নিতে গেলে উপজেলা প্রকৌশলী তার কাছে ঘুষ দাবী করেন। এ জন্য তার সাথে তর্ক বিতর্ক হয়।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x