ডামুড্যায় বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের শিকার স্কুল ছাত্রী

ডামুড্যায় বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের শিকার স্কুল ছাত্রী

সারাদেশ

ডামুড্যা (শরীয়তপুর) প্রতিনিধি:

শরীয়তপুর জেলার ডামুড্যায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দশম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠেছে আরিফ সরকার (২২) নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে। শনিবার দুপুরে ডামুড্যা থানায় মেয়েটির নানা বাদী হয়ে মামলা করেন।


অভিযুক্ত আরিফ সরকার (২২) গোসাইরহাট উপজেলার কুচাইপট্রি ইউনিয়নের মাইজারা গ্রামের রাছেল সরকারের ছেলে। আরিফ ঢাকায় টেইলারের কাজ করে।


স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, দশম শ্রেণীর ছাত্রীর সাথে আরিফ সরকারের সাথে পাঁচ থেকে ছয় মাস ধরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিভিন্ন সময় বিয়ে করবে বলে মেয়ের সাথে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে আরিফ। শুক্রবার রাতে বিয়ে করবে বলে মেয়েটির বাড়ির পাশের বাগানে নিয়ে কয়েকবার ধর্ষণ করে। স্থানীয়রা বিষয়টি টের পেয়ে আরিফ কে আটক করে। পরে আরিফের ফুফা মধু সরদারের কাছে ছেলেটিকে জিম্মি রাখেন স্থানীয়রা। রাতে আরিফ মেয়েটিকে বিয়ে করবে বলে জানালেও সকালে বিয়ে করবে না বলে আরিফ পালিয়ে যায়।


মেয়েটির নানা বলেন, আমার নাতীন এতিম। বাবা নেই। আমার কাছে থাকে। অনেক কষ্ট ও আদর করে ওরে পালতাছি, নাতীন বলল কয়েক মাস ধরে প্রেম করে আরিফের সাথে। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করেছে কয়েকবার। এখন বলে বিয়ে করেবে না। আমি এর বিচার চাই।
মেয়েটি বলেন, আরিফ আমাকে বিয়ে করবে বলে কানের দূল, নাক ফুল দিয়েছে। আমি এখন কি করবো। বিয়ে না করলে আত্মহত্যা ছাড়া উপায় নাই।
ডামুড্যা থানার অফিসার্স ইনচার্জ মো. জাফর আলী বিশ্বাস বলেন, দশম শ্রেণী স্কুল পড়ুয়া ছাত্রী কে ধর্ষণের অভিযোগ এসেছে। মেয়ের নানা বাদী হয়ে মামলা করেছেন। আমরা তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *