নাগেশ্বরীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট

Spread the love
  • 1
    Share

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে ৪টি অসহায় পরিবারের বাড়িতে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় নাগেশ্বরী থানায় মামলা দায়ের করেছে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার রামখানা ইউনিয়নের দক্ষিণ রামখানার শিয়ালকান্দা এলাকায়।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ওই এলাকার লুৎফর রহমান ও তার ভাইদের সাথে দির্ঘদিন যাবত পার্শ্ববর্তী মজিবর রহমান গং এর সাথে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিলো। এই বিরোধের জেরে মজিবরের লোকজন তাদের নানাভাবে ক্ষযক্ষতি এবং হুমকী ধমকির মাধ্যমে অত্যাচার ও নির্যাতন করার পায়তারা করে আসছিলো। এক পর্যায়ে ৪ আগস্ট মজিবর গং-এর একটি সন্ত্রাসী বাহিনী লুৎফর রহমান ও তার পরিবারের লোকজনকে হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো অস্ত্রসস্ত্রসহ ও লাঠিশোঠা নিয়ে লুৎফর রহমান ও তার ৩ ভাইয়ের বাড়িতে হামলা চালায়।

এ সময় তাদের বাড়িতে পুরুষ মানুষ না থাকার এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ওই সন্ত্রাসী বাহিনী লুৎফরের স্ত্রী আছমা বেগম, আব্দুর রহমানের স্ত্রী রাহিমা বেগম, পারভিন বেগম, বোন জমিলা বেগম ও তার সন্তানসহ বাড়ির সকল লোকজনকে টেনে হিঁচরে নিয়ে মারপিট করে আহত করে। এক পর্যায়ে তাদের ঘরে থাকা, গরু, ছাগল, ভেড়া, ধান, চাল, গহনা, খাট, চৌকি, পোশাক, নগদ অর্থসহ সকল আসবাবপত্র লুটপাট করে নিয়ে গেছে হামলাকারীরা। যার পরিমাণ প্রায ৩লাখ টাকা।

এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের লুৎফর রহমানের স্ত্রী আছমা বেগম বাদী হয়ে মজিবর রহমান, মহুর উদ্দিন, জহুর উদ্দিন, আলতাফ হোসেন, আলাল উদ্দিন, রাসেল মিয়া, গেন্দা মিয়া, আব্দুল আজিজ, গহের উদ্দিন, শাহ-আলম, নুরু মিয়া, শাহাদত হোসেন, আব্দুস সালামসহ ১৩ জনকে আসামী করে ৫ আগস্ট বুধবার নাগেশ্বরী থানায় একটি মামলা করেন। মামলা নং-০৫।

বৃহস্পতিবার সকালে সরেজমিন গলে ৪ বাড়িতেই ভাংচুর ও সামান্য কিছু জিনিসপত্র এলোমেলো দেখা যায়। এছাড়াও সেখানে মজিবরের লোকজনের মাধ্যমে হামলা ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে বলেও স্থানীয়রা জানান। তারা আরও জানান, অসহায় পরিবারগুলোর সবকিছু ছিনতাই করে নিয়ে যাওয়ায় তারা এখন অন্যের বস্ত্র পরিধান করে চলাফেরা করছে এবং অন্যের বাড়িতেই খাবার খেয়ে না খেয়ে অতিকষ্টে দিনযাপন করছেন।

এ ব্যাপারে বিবাদী মজিবর রহমানের সাথে কথা বলতে তার মোবাইল ফোনে একাধিকবার ফোন করলে অন্য কেউ ফোন রিসিভ করেন এবং সাংবাদিক পরিচয় দিলে লাইন কেটে দেন।

নাগেশ্বরী থানার অফিসার ইনচার্জ রওশন কবীর বলেন, দু’পক্ষই থানায় মামলা করেছেন। মামলার তদন্ত চলছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x