নৌকায় ভোট দেওয়ায় শৈলকুপায় ১৫টি পরিবার বাড়ি ছাড়া

Spread the love
  • 16
    Shares

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় উপজেলা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নৌকার পক্ষে কাজ করার অপরাধে এবং স্থানীয় গ্রুপিং এর কারনে উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামের ১৫টি পরিবার ৮মাস যাবৎ বাড়ি ছাড়া রয়েছে। তাছাড়া ঐ পরিবার গুলোর ৬০বিঘা জমিতে পিয়াজ চাষে বাঁধা প্রদান করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানা যায় নির্বাচন পরবর্তি সহিংসতায় গত আগস্টের ৪তারিখে মৃত আব্দুল জব্বার শেখের স্ত্রী পতিরন নেছা নামে একজন মহিলা নিহত হন। নিহতের ঘটনায় ৪৪জনকে আসামী করে থানায় মামলা করে। মামলার আসামীরা মামলা তুলে নিতে বাদিকে অব্যাহত চাপ দিয়ে যাচ্ছে, এই মামলা তুলে না নেওয়ার কারনে ১৫টি পরিবারের ৬০বিঘা জমিতে পিয়াজ চাষ করতে দেওয়া হয়নি বলে জানা যায়। মামলার আসামীরা উপজেলা নির্বাচনে সবায় নৌকার বিরুদ্ধে সোনা সিকদারের আনারস মার্কার পক্ষে ভোটে কাজ করেছে, আর যারা নৌকা প্রার্থী নায়েব আলী জোয়ার্দ্দারের পক্ষে কাজ করেছে তাদের উপরেই এই নির্যাতন চলছে বলে জানান ভুক্তভোগিরা।

এবিষয়ে উপজেলার পাইক পাড়া গ্রামের ষাটউর্দ্ধো আমিরুল ইসলাম বিশ্বাস, রেজা বিশ্বাস, হাসেম আলী বিশ্বাস, আব্দুল্লাহ বিশ্বাস, কাসেম বিশ্বাস জানান আমরা উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতিকের পক্ষে কাজ করার অপরাধে আমাদের ছেলে মেয়েদের দীর্ঘ ৮মাস যাবৎ বাড়িতে অবস্থান করতে দেয় না। হত্যা মামলার আসামী রাজ্জাক মন্ডল, সালামত, স্বপন, বাদশা ও রবিউলসহ সংঘবদ্ধ চক্রটি আমাদের ১৫টি পরিবারের ৬০বিঘা জমিতে পিয়াজসহ সকল চাষে বাধা দিয়ে যাচ্ছে। আবার অনেকে এদের টাকা পয়সা দিয়ে মাপ চেয়ে কিছু চাষ করেছে। সারা জীবন আওয়ামী লীগ করেও আমরা এখন সর্বোচ্চ নির্যাতনের ¯^ীকার হচ্ছি। তারা এই অবস্থার অবসানের জন্য প্রধানমন্ত্রীসহ স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এই বিষয়ে শৈলকুপা উপজেলা কৃষি কর্মকতা সঞ্জয় কুমার কুন্ডু জানান ৬০বিঘা জমিতে পিয়াজ চাষ করতে না পারা বিষয়ে একটা লিখিত অভিযোগ পেয়েছি।

এবিষয়ে শৈলকুপা থানার ওসি(তদন্ত) মহসিন হোসেন জানান এবিষয়ে কোন লিখিত অভিযোগ পায়নি অভিযোগ পেলে তদন্ত স্বাপেক্ষে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x