প্রতিমাকে সুন্দর করে গড়ে তুলতে দিন-রাত কাজ করছেন প্রতিমা তৈরি শিল্পীরা

Spread the love
  • 20
    Shares

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি-
হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারর্দীয় দূর্গা পূজা। আর এ দূর্গা পূজাকে সামনে রেখে ঝিনাইদহ জেলার পূজা মন্ডপ গুলোতে প্রতিমাকে সুন্দর করে গড়ে তুলতে দিন-রাত এক করে কাজ করছেন প্রতিমা তৈরি শিল্পীরা।

জানা গেছে, আগামী ৪ অক্টোবর ষষ্ঠী’র মধ্যেদিয়ে শারদীয় দূর্গাৎসব শুরু হবে। এবার জেলার ৪৩২টি মন্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হবে। পূজা উৎসবকে পরিপূর্ণ রূপ দিতে মন্দির গুলোতে চলছে ব্যাপক সাজসজ্জা। ইতি মধ্যে বেশির ভাগ মন্ডপ গুলোতে প্রথম মাটির কাজ শেষে এখন দো-মাটির কাজ চলছে। সাধারনত প্রতিমা তৈরির সাজ-সজ্জার জিনিস, রং কেনেন কারিগরররা যা তাদের মজুরীর ভিতর থাকে। এক এক জন কারিগর ৫ থেকে ৬ টি করে মন্দিরের প্রতিমা তৈরি করছেন আর মন্দির ভেদে তারা ৫০ হাজার টাকা থেকে ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা নিচ্ছেন। প্রতিমা তৈরির অন্যান্য উপাদান, মাটি, বাশ কিংবা অন্যান্য সামগ্রী সরবরাহ করে মন্দির কর্তৃপক্ষ। ফলে কারিগরদের লাভের অংকটাও অনেক বেশী হচ্ছে।

ঝিনাইদহ শহরের কেন্দ্রীয় বারোয়ারী দূর্গা মন্দিরের প্রতিমা শিল্পী অরবিন্দু জানান, মাটির কাজ শেষে হলেই শুরু হবে রং তুলির আচড়। প্রতিমাগুলো মনোমুগ্ধকর ও নিখুতভাবে ফুটিয়ে তুলতে সর্বোচ্চ মনোযোগ দিয়ে কাজ করছেন। এবছর তিনি ৬টি মন্ডপের প্রতিমা তৈরি করছেন। মন্দির ভেদে ৫০ হাজার টাকা থেকে ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা নিয়ে থাকছেন। তিনি আশা করছেন নির্ধারিত সময়ের আগেই শেষ হবে প্রতিমা তৈরির কাজ।

জেলা পূজা উৎযাপন পরিষদের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কনক কান্তি দাস জানান, এবার জেলায় ৪৩২ টি মন্দিরে পূজা অনুষ্ঠিত হবে। এ উপলক্ষে প্রতিমা তৈরির কাজ পুরোদমে এগিয়ে চলছে। তিনি জানান ইতোমধ্যেই পূজাকে ঘিরে মন্দিরে মন্দিরে কমিটি গঠন করেছেন। তারা নিয়মিত সার্বিক খোজ খবর রাখছেন। যেন সুন্দর সুষ্ঠভাবে উৎসব সম্পন্ন হয়।

শারদীয় দুর্গাপূজার নিরাপত্তার বিষয়ে ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান জানান, শারদীয় দুর্গাপূজায় যেন কোন ধরণের অপ্রতীকর ঘটনা না ঘটে সেজন্য প্রশাসন সর্বদা সজাগ রয়েছে। সকল সনাতন ধর্মাবলম্বী মানুষ যাতে নির্বিগ্নে তাদের উৎসব পালন করতে পারে সে বিষয়ে সকল প্রকার প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x