প্রধানমন্ত্রীর সহযোগীতা পেল সন্তান জন্ম দেওয়া মানসিক প্রতিবন্ধী তরুণী ও আশ্রয়দানকারী

Spread the love
  • 18
    Shares

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে মা হওয়া এক মানসিক প্রতিবন্ধী (পাগলি) তরুণী ও আশ্রয়দানকারী আমজাদ-ছাকিরন দম্পতির হাতে প্রধানমন্ত্রীর প¶ থেকে নগদ ৫৫ হাজার টাকা ও ভ্যান তুলে দেওয়া হয়েছে। বুধবার (৭অক্টবর) বেলা ১১ টার দিকে উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্স চত্তরে এ সহযোগীতা দেওয়া হয়।

এ সময় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ -৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার। সেসময় জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুবর্ণা রাণী সাহা, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার শামীমা শিরিন লুবনা, সদর হাসপাতালের সার্জারী বিশেষজ্ঞ ডাক্তার এমএ কাফি, মেডিকেল অফিসার আফসানা পারভিন, উপস্থিত ছিলেন।

সহযোগীতা দানকালে জেলা প্রশাসক (ডিসি) সরোজ কুমার নাথ বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই প্রতিবন্ধী ও শিশুটির সম্পুণৃ দায়িত্ব নিয়েছেন। আজ তার দেওয়া সহযোগীতা পরিবারটির হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। শিশুটির ভবিষ্যতের জন্য সকল সহযোগীতা করা হবে আশ্রয়দানকারী পরিবারটিকে।

জানা যায়, বেশ কয়েকদিন আগে মানসিক প্রতিবন্ধী (পাগলি) তরুণী অন্তসত্তা অবস্থায় ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার কোলা বাজারে ঘোরাঘুরি করতেন। তিনি নিজের নাম-পরিচয় কিছুই বলতে পারেন না। এ অবস্থা দেখে উপজেলার কোলা এলাকার ময়ধরপুর গ্রামের হতদরিদ্র দিনমজুর আমজাদ হোসেন তার বাড়িতে আশ্রয় দেন।

মেয়েটির প্রসব বেদনা উঠলে শুক্রবার (২অক্টবর) দুপুরে উপজেলা ¯^াস্থ্য কমপ্লেক্সে তাকে ভর্তি করা হলে বিকালে একটি ফুটফুটে কন্যা সন্তান জন্ম দেয়। মেয়েটি তার সন্তানের জন্মদাতা কে তাও সে বলতে পারেনা। এমন সময় রাতে হাসপাতালে ছুটে আসেন ঝিনাইদহের জেলা প্রশাসক (ডিসি) সরোজ কুমার নাথ। তিনি অজ্ঞাত ওই তরুণীর নবজাতককে কোলে তুলে নেন।

সেসময় জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ বলেন, ফেসবুকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় বিষয়টি অবগত হয়েছে। এ বিষয়টি দেখভাল করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে আমাকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশে নবজাতক ও তার মায়ের সকল চিকিৎসার খরচ জেলা প্রশাসন বহন করবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x