বাহরাইনে বাংলাদেশি শ্রমিকদের সুখবর

Spread the love

প্রাণঘাতী করোনার প্রাদুর্ভাবে সৃষ্ট ‍উদ্ভূত পরিস্থিতিতে যেসব বিদেশি কর্মী অনিয়মিত হয়ে পড়েছেন, সেসব কর্মীদের বৈধতা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাহরাইন।বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসের সংক্রমণের মধ্যে বাহরাইনে থাকা বাংলাদেশিসহ বিদেশি কর্মীদের জন্য সুখবর দিল দেশটির সরকার।

বিদেশি কর্মীদের জন্য বাহরাইন সরকারের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণার পর মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটিতে অবস্থানরত প্রায় ৪০ হাজার বাংলাদেশি কর্মী বৈধ হওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন।

এ বিষয়ে বাহরাইনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. নজরুল ইসলাম শনিবার বলেন, যেসব বিদেশি কর্মীরা ভিসার মেয়াদ কিংবা যথাযথ কাগজপত্রের কারণে অনিয়মিত হয়ে পড়েছেন, তাদের জন্য বাহরাইন সরকার একটি সুযোগ দিয়েছে। এ মাসের শুরুতে অনিয়মিত হয়ে পড়া ৫৫ হাজার বিদেশি কর্মীকে বৈধতা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাহরাইন সরকার। ফলে বাংলাদেশের অনিয়মিত হয়ে পড়া ৫০ হাজার কর্মীর মধ্যে প্রায় ৪০ হাজার কর্মী বৈধ হওয়ার সুযোগ পাবেন।

রাষ্ট্রদূত বলেন, ইতিমধ্যেই দূতাবাস বাংলাদেশের কর্মীদের যথাযথভাবে আবেদনের জন্য পরামর্শ দিয়েছে। পাশাপাশি বাংলাদেশের কর্মীরা যাতে সর্বোচ্চ সুবিধা পান, সেদিকে লক্ষ রেখে এখানকার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনাও শুরু করা হয়েছে।

করোনাভাইরাসের মহামারিতে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে বাহরাইন সরকার ইতিমধ্যেই আগামী জুন মাস পর্যন্ত বিদেশি কর্মীদের সব ধরনের মাশুল মওকুফ করেছে বলে জানান রাষ্ট্রদূত নজরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, বাহরাইনে বর্তমানে প্রায় দুই লাখ বাংলাদেশি কাজ করছেন। নানা কারণে এদের মধ্যে প্রায় ৫০ হাজার অনিয়মিত হয়ে পড়েছেন। বাংলাদেশিরা মূলত নির্মাণ শ্রমিক, গাড়িচালক এবং পরিচ্ছন্ন কর্মী হিসেবে এখানে (বাহরাইনে) কাজ করেন। এছাড়া ৫ হাজারের মতো বাংলাদেশি ছোটখাট ব্যবসা পরিচালনা করেন থাকেন।

রাষ্ট্রদূত জানান, বাংলাদেশের কর্মীরা যাতে নিয়মিত হওয়ার সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেন, সে জন্য বাহরাইন পোস্টের মাধ্যমে তাদের জন্য নতুন পাসপোর্ট ইস্যু অথবা পাসপোর্ট নবায়নের ব্যবস্থা করা হচ্ছে ।

পাশাপাশি বাংলাদেশের কর্মীরা যাতে স্বাচ্ছন্দ্যে এলএমআরএর মাধ্যমে অনলাইনে নিবন্ধন করতে পারেন, সে জন্য বাহরাইন সরকার ফাইন্যান্স কোম্পানিকে এই প্রক্রিয়ার সঙ্গে সম্পৃক্ত করেছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x