ভারতের কারাগার থেকে মুক্তি পেল ২৫ বাংলাদেশি

Spread the love
  • 1
    Share

হাফিজুর রহমান হৃদয়, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:

ভ্রমণ ভিসায় গিয়ে করোনাকালে ভারতের জেলে বন্দি ২৫ বাংলাদেশি অবশেষে সব জটিলতা কাটিয়ে মুক্তির আদেশ দিয়েছেন দেশটির ধুবড়ি আদালত। শনিবার (২৯ আগস্ট) দুপুরে ভারতের ধুবড়ি আদালত এই আদেশ দেয়।

আদালতের এ আদেশের ফলে কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলার বাসিন্দা ওই ২৫ শ্রমজীবীর দেশে ফিরে আসতে আর কোন বাধা রইল না।

কুড়িগ্রামের পাবলিক প্রসিকিউটর ও বাংলাদেশ-ভারত বর্ডার ভিকটিম রেসকিউ কমিটির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট এসএম আব্রাহাম লিংকন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানিয়েছেন, শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে গৌহাটিস্থ বাংলাদেশের সহকারী হাইকমিশনার তানভীর মনসুর এবং ধুবড়ি আদালতের আইনজীবী ও আসাম ট্রিবিউনের সম্পাদক রাজর্ষী দাসগুপ্ত আদালতের আদেশের বিষয়টি তাকে নিশ্চিত করেছেন।

অ্যাডভোকেট এসএম আব্রাহাম লিংকন আরও জানান, বাংলাদেশ সরকারের অনুরোধে ভারত সরকারের প্রসিকিউশন মামলাটি কলঅফ করার সম্মতি দেয়। এরই প্রে¶িতে সব প¶ের আইনজীবীদের শুনানির পর ধুবড়ি আদালতের বিচারক জেলহাজতে আটক ২৫ বাংলাদেশিকে মামলার দায় থেকে অব্যাহতির আদেশ দেন।

জানা গেছে, গত ৩ মে দেশে ফেরার সময় ভ্রমণ ভিসা নিয়ে ভারতে যাওয়া ২৬ বাংলাদেশিকে আটক করে ভারতের ধুবড়ি পুলিশ। এদের একজন ভারতে কারা হেফাজতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। আটককৃতরা বৈধ পাসপোর্ট ও তিন মাস মেয়াদের ভ্রমণ ভিসায় ভারতে গিয়েছিলেন। করোনার সময় লকডাউনের ফলে তাদের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে ধুবড়ি পুলিশ তাদের আটক করে।এরমধ্য দিয়ে তাদের বির“দ্ধে আনীত অভিযোগ প্রত্যাহার হলো। এখন অন্য আইনি প্রক্রিয়া শেষে তারা দ্র“ত দেশে ফিরে আসবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বর থেকে ২০২০ সালের ফেব্র“য়ারি পর্যš— বিভিন্ন সময় কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলার রমনা ইউনিয়নের ২৬ বাংলাদেশি ভারতে যান। বৈধ পাসপোর্ট ও ভ্রমণ ভিসা থাকলেও ভারতে দ্বিতীয় ধাপের লকডাউন চলার মধ্যে গত ২ মে ওই ২৬ জন বাংলাদেশি দু’টি মিনিবাসে আসামের জোরহাট জেলা থেকে দেশে ফেরার উদ্দেশে রওনা দেন।সেখান থেকে তাদের আটক করেছিল ধুবড়ি পুলিশ।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x