মহেশপুরে সরকারী রাস্তার গাছ কেটে আত্মসাৎ করলেন ইউপি সদস্য স্বপন

Spread the love
  • 143
    Shares

শামীম খানঃ

ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার মান্দারবাড়ীয়া ইউনিয়নের মান্দারবাড়ীয়া গ্রাম থেকে ফাঁস তলার রাস্তার দু’ধারের দেড় লাখ টাকা মুল্যের ২৫টি বাবলা গাছ কেটে সাবাড় করে দিয়েছে ইউপি সদস্য ¯^পন মেম্বার।

এলাকাবাসী জানান, মান্দারবাড়ীয়া মোড় হতে চাঁদপাড়া রাস্তার সম্প্রসারনের কাজ শুরু হয়েছে। সেখানে ৭নং ওয়ার্ডের অধীনে সরকারী রাস্তার পাশের দু’ধারে ২৫টি বাবলা গাছ ছিলো। ইউপি সদস্য স্বপন সরকারী রাস্তার গাছ পরিষদে জমা না দিয়ে নিজেই গাছ গুলো কেটে আতœসাৎ করেছেন।

মান্দারবাড়ীয়া ইউনিয়নের চৌকিদার ক্ষেত্রলাল জানান, ৮দিন পূর্বে ইউপি সদস্য স্বপন আমাকে সাথে নিয়ে সরকারী রাস্তার গাছ গুলো গুনতে বলে। আমি ছোট বড় মিলে ২৫টি বাবলা গাছ গুনে দিয়েছিলাম। পরে গাছ গুলো কাউকে না বলে ¯^পন মেম্বার নিজেই কেটে নিয়ে গেছে। গাছ গুলোর আনুমানিক মুল্য প্রায় ১ লাখ টাকা হবে।

মান্দারবাড়ীয়া ইউনিয়নের উপ-সহকারী (ভূমি) কর্মকর্তা সামাউল ইসলাম জানান, রাস্তা নির্মানের কাজ হচ্ছে। কিন্তু রাস্তার দু’ধারের গাছ গুলো কিভাবে উপজেলা নির্বাহি অফিসার অথবা সহকারী কমিশনার ভূমি স্যারকে না জানিয়ে ইউপি সদস্য ¯^পন কিভাবে কেটে নিয়ে গেলেন তা আমার জানা নেই।

মান্দারবাড়ীয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শফিদুল ইসলাম জানান, রাস্তার গাছ কাটা সম্পর্কে আমি কিছু জানি না। যে সরকারী রাস্তার গাছ কেটেছে সে হিসাব দেবে। আমি না।

মান্দারবাড়ীয়া ইউনিয়নের ইউপি সদস্য স্বপন মেম্বার গাছ কাটার কথা স্বীকার করে জানান, ১১টির মত বাবলা গাছ আমি চেয়ারম্যান ও নায়েবের সাথে কথা বলে নিয়ে এসে শামীমের স- মিলের পাশে রাস্তার ধারে রেখেছি। বিক্রির উদ্যোশে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন গাছ গুলো কাটতে তো খরচ হয়েছে। তাছাড়া ভ্যান ভাড়াও তো আছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) সুজন সরকার জানান, গাছ কাটার ব্যাপারে এখনও আমার কাছে কেউ কোন অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x