মহেশপুরে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে অবাধে চলছে জলুলী বিলে মাছ ধরা

Spread the love
  • 44
    Shares

শামীম খানঃ

আদালতের দেওয়া ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে অবাধে চলছে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার জলুলী বিলে মাছ ধরার কাজ। ক্ষমতাসীন দলের ছত্র ছায়ায় থাকার কারণে তারা আদালতের রায়কে অবমাননা করে প্রতিদিন সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত চলে মাছ ধরার কাজ। গতকাল সোমবার সকালে জলুলী বিলে গিয়ে দেখা যায় ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা ভাড়াটিয়া জেলেদের দিয়ে বিল থেকে মাছ ধরে নিয়ে যাচ্ছে বিক্রির উদ্দেশ্যে।

জলুলী গ্রামের আব্দুল করিম জানান, বিলটি সরকারের কাছ থেকে ডাক না পাওয়ার কারণে বিলের সীমানায় মালিকানা জমি লিজ নিয়ে মাছ চাষ করে আসছিলাম।

কিন্তু অতি বৃষ্টির কারণে সরকারের জলমহল ও আমাদের জলমহলটি একাকার হয়ে যায়। যারই কারণে মাছ ধরা বন্ধ রাখার জন্য আদালতে ১৪৪ ধারা আবেদন করা হয়। বিজ্ঞ আদালত গত ২৭ আগস্ট জলুলী বিলের উপর ১৪৪ ধারা জারি করেন। কিন্তু ১৪৪ ধারা জারি থাকা সত্তে¡ও জলুলী গ্রামের বাবলু, জামাল হোসেন, রফি ব্যাপারী, আয়ুব হোসেনসহ সরকার দলীয় নেতা-কর্মীরা প্রতিদিন সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত মাছ ধরে চলেছে।

রফি ব্যাপারী জানান, সরকারের কাছ বিলটি ইজারা নিয়ে আমরা চাষ করে আসছি। বিলের পাশে মালিকানা জমি থাকলেও অতি বৃষ্টির কারণে এখন আর চেনার উপায় নেই কোনটি বিল কোনটা পুকুর। তারপরও আমরা জলুলী গ্রামের আব্দুল করিমকে বসে মিমাংসা করার জন্য বলেছিলাম।

ইউপি সদস্য মফিজ উদ্দীন জানান, আমাদের লিজ নেওয়া জল-মহলের সীমানা হতে তারা প্রতিদিন মাছ ধরে চলেছে। তারা আদালতের ১৪৪ ধারা পর্যন্ত মানছেন না। তিনি আরও জানান, গত ১০ দিনে বিল ও আমাদের লিজ নেওয়া জলমহল থেকে প্রায় ১০ লাখ টাকার মাছ ধরে নিয়ে বিক্রি করেছেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x