মহেশপুরে ১৫২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠদান বন্ধ রেখে কর্মকর্তা ও শিক্ষকদের ভূড়িভোজ

Spread the love
  • 120
    Shares

শামীম খানঃ

ঝিনাইদহের মহেশপুরে ১৫২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠদান কার্যক্রম বন্ধ রেখে বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী শিক্ষা অফিসের কর্মকর্তা ও শিক্ষকদের ভূড়িভোজের আয়োজন করা হয়েছে। জেলা প্রশাসন বা জেলা কর্মকর্তা বিষয়টি জানেন না।

প্রাপ্ত সূত্রে প্রকাশ, উপজেলার ১৫২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগন ও শিক্ষা অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারি মিলে উপজেলার তালতলা দরগা নামক স্থানে ভূড়িভোজ বা তাদের ভাষায় মিলনমেলার আয়োজন করেছে। আয়োজক কমিটির শিক্ষক নেতা মাহবুবু আজম ইকবাল ঝড়– জানিয়েছেন তারা একদিনের ঐচ্ছিক ছুটি নিয়ে সকলে মিলে পিকনিকের আয়োজন করেছে। এখানে উপজেলা শিক্ষা অফিসের সকল কর্মকর্তা উপস্থিত থাকবেন। অনুষ্ঠানে গন-মাধ্যম কর্মীদেরকেও দাওয়াত দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আবু হাসান জানান তিনি একদিনের ঐচ্ছিক ছুটি ঘোষণা করেছেন। উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে ছুটি দেওয়া হয়েছে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন সরকারি বিধি মোতাবেক ছুটি দেওয়া হয়েছে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন বিষয়টি আমার জানা নেই। ঝিনাইদহ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এডিসি শিক্ষা) রবিউল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন বিষয়টি আমার জানা নেই।

একযোগে ১৫২টি স্কুল বন্ধ ঘোষণা করে বোনভোজন করায় এলাকায় সাধারন মানুষের মধ্যে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। অনেকেই জানিয়েছেন এই গেট টু গেদার বন্ধের দিন করলে ভাল হতো। অভিভাবকরা পাঠদান বন্ধ করে বা উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি না নিয়েই এই কাজটি করা সরকারি বিধির লংঘন বলে মনে করেন।

এ বিষয়ে বজরাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোফাজ্জেল হোসেন মাষ্টার বলেন যেহেতু এটি সিলেবাসে নাই সেকারনে তিনি স্কুল বন্ধ না করে মিলনমেলায় যোগদান করেননি। এছাড়া ঐ মিলনমেলায় প্রায় ৮শ শিক্ষকের কাছে ৪শ টাকা হারে প্রতিজনের কাছ থেকে প্রায় ৩লক্ষ টাকা উত্তোলন করা হয়েছে।
উপজেলা শিক্ষা কমিটির সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান ময়জদ্দীন হামীদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x