মহেশপুর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে জিম্মি ভুক্তভোগীরা

Spread the love
  • 329
    Shares

শামীম খান:

দূর্নীতির স্বর্গরাজ্যের আর এক নাম হিসেবে পরিচিত মহেশপুর সাব-রেজিস্ট্রি অফিস।  মহেশপুর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের কাছে জিম্মি হয়ে পরেছে ভুক্তভোগীরা। ওই অফিসের সকলেই বিভিন্ন  নিয়ম কানুন ও ভুয়া খাত দেখিয়ে এবং দলিল লেখক সমিতির নাম ভাঙ্গিয়ে  ভুক্ত ভোগীদের নিকট থেকে অবৈধ ভাবে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।

 দীর্ঘদিন যাবত মহেশপুর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে এ ধরণের দূর্নীতি চলতে থাকলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যে কোন কারণ বসত দূর্নীতি বাজদের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ গ্রহন করতে পারছে না। আর প্রতিনিয়ত ভূমি ক্রেতাদের গলা কেটে রাতা রাতি অবৈধ টাকার পাহাড় গড়ছেন  কিছু অসাধু ভূমি কর্মকর্তা  কর্মচারী ও দলিল লেখকগন।

 সূত্রে জানা যায়, ইউনিয়ন পর্যায়ে ১লক্ষ টাকার মূল্যে জমির দলিল করতে সরকারী নিয়মানুয়ী খরচ হয় ৯হাজার টাকা । এর মধ্যে স্ট্যম্প খরচ ৩ হাজার টাকা , রেজিস্ট্রেশন ফ্রি ২ হাজার টাকা, স্থানীয় উন্নয়ন কর ৩ হাজার টাকা,এবং উৎসব কর ১ হাজার টাকা। কিন্তু সেখানে  দলিল লেখক সমিতির কারসাজিতে তাদের নির্দেশ অনুযায়ী ১ লক্ষ টাকার মূল্যে জমির দলিল রেজিস্ট্রি করতে সরকার নির্ধারিত ফ্রি ৯ হাজার টাকার পরিবর্তে বিভিন্ন মনগড়া খাত দেখিয়ে ১৩ হাজার থেকে ১৫ হাজার টাকা পর্যন্ত হাতিয়ে নেওয়া হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক জন দলিল লেখক জানান, ১লক্ষ টাকার মূল্যে জমির দলিল রেজিস্ট্রি করতে ৯ হাজার টাকার পরিবর্তে ১৩ থেকে ১৫ হাজার টাকা নিয়ে থাকি কথাটা সত্য । কিন্তু এ টাকার ভাগ অনেককেই দিতে হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আরেক জন দলিল লেখক বলেন, ১লক্ষ টাকার মূল্যে জমির দলিল রেজিস্ট্রি করতে সারকে অতিরিক্ত ১ হাজার টাকা দিতে হয় । না দিলে তিনি দলিলে সাক্ষর করেন না।

  একজন ভুক্তভোগী বলেন,আমি ৩শতক জমি কিনে রেজ্রিস্ট্রি করতে গেলে একলক্ষ টাকার মূল্যে ১৪ হাজার করে দিতে হয়েছে।

এ বিষয়ে মহেশপুর একতা দলিল লেখক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ আলী জানান, ইউনিয়ন পর্যায়ে ১লক্ষ টাকার মূল্যে জমির দলিল করতে সরকারী নিয়মানুয়ী খরচ হয় ১০হাজার ৫০০টাকা।অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার বিষয়টি ¯^ীকার করে তিনি বলেন,সকলকেই ম্যানেজ করে জমি রেজিস্ট্রি করতে হয়।

এবিষয়ে সাব-রেজিস্ট্রার শফিকুল ইসলাম জানান, সরকারি নির্ধারিত ফ্রি ৯ হাজার টাকা নিয়ে জমি রেজ্রিস্ট্রি করে থাকি। মহেশপুরে একতা দলিল লেখক সমিতি নামে, কোন সমিতি আছে বলে আমার জানা নেই।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x