মহেশপুর হাসপাতালে ফার্মেসিটি ও ষ্টোর কিপার না থাকায় স্বাস্থ্যসেবা ভেঙ্গে পড়েছে

Spread the love
  • 59
    Shares

শামীম খানঃ

ঝিনাইদহের মহেশপুর ৫০শয্যা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে দীর্ঘদিন ধরে ফার্মেসিটি ও ষ্টোর কিপার না থাকায় স্বাস্থ্যসেবা ভেঙ্গে পড়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা অসহায়ত্ব প্রকাশ করেছেন।

প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, মহেশপুর হাসপাতালে উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে বর্তমানে ডাক্তার ও ঔষধ ঘাটতি না থাকলেও ২জন ফার্মেসিটি,ষ্টোর কিপার, পরিসংখ্যানবিদ,ক্যাশিয়ার,মালি পদ দীর্ঘদিন শূণ্য রয়েছে।

উপজেলা ইউএইচএন্ডএফপিও ডাঃ আনজুমানারা বেগম জানান, এ সকল পদগুলি দীর্ঘদিন শূণ্য থাকায় তারা সঠিকভাবে কাজ করতে পারছে না। এই হাসপাতালে ১৩জন কর্মকর্তা ও কর্মচারি বিভিন্ন বিভাগে কর্মরত থাকলেও তারা ডেপুটেশনে বাইরে কর্মরত রয়েছে। ফলে হাসপাতালের জনবল সংকট থাকায় তারা মানুষকে সঠিকভাবে সেবা দিতে পারছে না। তিনি আরো বলেন, এ সকল বিষয়ে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে একাধিকবার জানিয়ে কোন সূরাহ হয়নি। এদিকে মহেশপুর হাসপাতালের রোগীরা নানাভাবে সেবা নিতে এসে বঞ্চিত হচ্ছে। ডাক্তার ও ঔষধ থাকলেও তারা সেবা পাচ্ছে না। ইতিপূর্বে ডাক্তার না থাকার কারণে নানা সমস্যায় ছিল এই হসপিটালটি। গত কয়েক মাস আগে ১৭জন ডাক্তার একসাথে যোগদান করায় ডাক্তার সংকট দূর হয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা সিভিল সার্জন সেলিনা বেগম জানান, মহেশপুর হাসপাতালের সমস্যাগুলি আমরা লিখিতভাবে পরিচালক স্বাস্থ্য অধিদপ্তর কে জানিয়েছি কিন্তু এখনও কোন সূরাহ হয়নি। মহেশপুর হাসপাতালে ¯^াস্থ্যসেবা ব্যাহত হচ্ছে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য,মহেশপুর একটি বৃহত্তর উপজেলা। এই উপজেলার ৫ লক্ষাধিক মানুষ এই হাসপাতালের উপর নির্ভরশীল। এলাকাবাসী মহেশপুর হাসপাতালকে আরো আধুনিকায়ন ও সমস্যা সমাধানের জন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রীর জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x