রংপুরে শিশু হত্যার অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ফাহাদ হোসেন সাহস,রংপুর প্রতিনিধিঃ
রংপুরে মাইশা আক্তার (৪) নামের এক শিশুকে হত্যার অভিযোগে জহুরল হক রানা ওরফে ছক্কু (৪৫) নামের একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) নগরের কেরানীপাডা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয।

শিশুটি নিখোঁজের ১৮ঘন্টা পর বাড়ির পাশে ডোবা থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করেছিল পুলিশ। নগরীর ১৪নং ওয়ার্ডের বড়বাড়ি সরকারপাড়া গ্রামের শ্রমিক মনোয়ার হোসেনের মেয়ে মাইশা আক্তার।

আজ বৃহস্পতিবার (৩১ ডিসেম্বর) দুপুরে রংপুর পিবিআইর সুপার এ বি এম জাকির হোসেন প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।
পিবিআই পুলিশ সুপার আরও জানান, শিশুটির পরিবার ও অভিযুক্ত জহুরল হক রানা প্রতিবেশী। মাইশা তাকে দাদু বলে ডাকত। বাডড়িতে একা থাকতেন ছক্কু। ঘটনার দিন সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে ছক্কু মাইশাকে মোয়া কেনার জন্য দুই টাকা দেন। শিশু মাইশা মোয়া কিনে আনলে ছক্কু কৌশলে তাকে বাড়ির ভেতর নিয়ে যায় এবং কয়েকবার চুমু দিয়েছিল এ সময় মাইশা বাঁশের কঞ্চি দিয়ে ছক্কুকে আঘাত করলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে সজোরে ধাক্কা দেন। এতে বাঁশের সঙ্গে ধাক্কা লেগে ঘটনাস্থলে মৃত্যুবরণ করে মাইশা।

এরপর বস্তায় তার মরদেহ ভরে বাড়িতে লুকিয়ে রাখেন। পরে রাত ১১টার দিকে মাইশার মরদেহ প্রতিবেশী শাহিনের ডোবায় ফেলে আত্মগোপনে চলে যান ছক্কু।

এ ঘটনায় শিশুটির বাবা মনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে ওই দিনই মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা করেন। রংপুর পিবিআই ওই মামলার তদন্তভার গ্রহণ করে।

তদন্তের একপর্যায় ঘটনার সঙ্গে জড়িত জহুরল হক রানাকে নগরীর কেরানীপাড়া থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাকে আদালতে হাজির করা হলে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন তিনি।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x