হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সমাধিতে পুস্পার্ঘ্য অর্পণ ও জিয়ারত

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ফাহাদ হোসেন সাহস ,রংপুর প্রতিনিধিঃ
জাতীয় পার্টির ৩৬ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে শুক্রবার দুপুরে রংপুরের পল্লী নিবাসের বাসভবনে পার্টির সাবেক চেয়ারম্যান প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সমাধিতে পুস্পার্ঘ্য অর্পণ করেন এবং এরশাদের কবর জিয়ারত শেষে কেঁদেছেন বিদিশা এরশাদ ও পুত্র এরিক এরশাদ। এরিক তার বাবার করবের নাম ফলক মুছে পরিস্কার করে কয়েক মিনিট কাঁদেন। এরপর এরশাদের পল্লী নিবাসে বাসভবনে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর কেক কাটা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান জাপার সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী মামুনুর রশীদ, সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য জাফর আহমেদ সিদ্দিকী, হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ ট্রাস্টের পরিচালক অ্যাড. রুবায়েত হাসান, প্রেস সচিব এএসএম সায়েম সাকলায়েম। শেষে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন বিদিশা এরশাদ ।

বিদিশা এরশাদ বলেন, যে কোন দলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আসলে সেই দলের নেতাকর্মীরা দলের প্রধানদের কবর জিয়ারত করতে যান। অন্যরা এখানে কে কি করছে আমি জানি না। এরিকের ইচ্ছা অনুযায়ী আমরা রংপুরে এসে সাবেক রাষ্ট্রপতি জাপা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের কবর জিয়ারত করলাম। আমি যুব ও তৃণমূলের মানুষদের দলে আনতে কাজ করবো। এতে করে জাতীয় পার্টিতে স্বঘোষিত চেয়ারম্যান ঘোষনা দেয়ার আর জায়গা থাকবে না। আমরা ভবিষ্যতে পার্টিতে আর যেন স্বঘোষিত চেয়ারম্যান হতে না পারে সেদিকে খেয়াল রাখবো।

আরো বলেন জাতীয় পার্টি লাইফ সার্পোটে চলে গেছে । তিনি বলেন, এখন যে জাতীয় পার্টি সেটি এরশাদের জাতীয় পার্টি না। জাতীয় পার্টি লাইফ সার্পোটে চলে গেছেন বলে তিনি মনে করেন। জাতীয় পার্টিকে পুরনো রূপে ফিরিয়ে আনতে আমি এরিক এরশাদকে নিয়ে টেকনাফ থেকে তেতুলিয়া, রূপসা থেকে পাটুরিয়া যাব। দলকে সুসংগঠিত করতে সারাদেশে জাতীয় পার্টির সাবেক ও বর্তমান নেতৃবৃন্দদের সাথে যোগাযোগসহ তাদের ঘরে ঘরে যাবেন তিনি।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x