৭০ বছররে বৃদ্ধকে হাসপাতালে ফেলে পালালেন স্বজনরা

  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

উৎস ডেস্কঃ

৭০ বছররে গুরুতর অসুস্থ এক বৃদ্ধকে মিথ্যা পরিচয় ও ঠিকানা দিয়ে কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ফেলে পালিয়েছেন তার স্বজনরা।গত চার দিন হাসপাতালের বিছানায় মৃত্যু যন্ত্রণায় ছটফট করছেন ওই বৃদ্ধ।
হাসপাতাল ও বাজিতপুর থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে রেজিস্ট্রারের লিপবদ্ধ নাম-ঠিকানা অনুযায়ী চিকিৎসাধীন ওই বৃদ্ধ উপজেলার সরারচর ইউনিয়নের কামালপুর গ্রামরে মৃত পরশ চন্দ্র সাহার ছেলে প্রদীপ সাহা। বয়স দেয়া হয়েছে ৫৮ বছর। কিন্তু প্রকৃত অর্থে তার বয়স ৭০ বছররে বেশি হবে।
গত শনিবার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ঘটনাটি থানা পুলিশকে জানায়। এর পর উপপরিদর্শক জাহাঙ্গীর আলমকে হাসপাতালের রেজিস্ট্রারে লিপবদ্ধ নাম-ঠিকানার সূত্র ধরে স্বজনদের খুঁজে বের করার জন্য পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু সেখানে গিয়ে এই নাম ঠিকানায় কনো অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি।

ওই উপপরিদর্শকের মতে ভুল ঠিকানা দিয়ে স্বজনরা হয়তো পালিয়েছে।
মেডিকেল অফিসার ডা. মুশফিকুর রহমান জানায় বিপ্লব সাহা পরিচয়ে একজন পাঁচদিন আগে ওই বৃদ্ধকে মূমূর্ষূ অবস্থায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন । তিনি রেজিস্ট্রারে ইংরেজিতে তার নামও বিপ্লব সাহা লিখেছিলেন এবং তার মোবাইল নম্বর লিখতে বললে তা না লিখেই সুযোগ বুঝে বৃদ্ধকে ফেলে চম্পট দেন। তবে ধারণা করা হচ্ছে তিনি নিজের নাম সহ রোগীর নাম- ঠিকানা ভূয়া দিয়েছেন।

কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ মুজিবর রহমান ঘটনার সত্য়তা নিশ্চিত করে বলেন, তিনি খোঁজ নিয়ে জেনেছেন.ওই বৃদ্ধ প্রকৃতপক্ষে স্ট্রোকের রোগী। বর্তমানে তিনি শিশু ওয়ার্ডের একটি বেডে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ভর্তি। ওই বৃদ্ধের কথাবার্তাও অসংলগ্ন । নাম বলতে না পারলেও বাড়ি কোথায় জানতে চাইলে একবার বলেন কামালপুর আরেকবার সচারচর বলছেন।ডাঃ মোঃ মুজিবর রহমান আরো জানান ওই বৃদ্ধের উপযুক্ত চিকিৎসা এবং প্রয়োজনীয় ঔষধপত্র সরবরাহ করার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে ইতি মধ্যে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

x